হবিগঞ্জ ১০:২২ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ৩১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
Logo ব্যারিস্টার সুমন এমপিকে সংবর্ধনা দিল চুনারুঘাট ব্যবসায়ী কল্যাণ সমিতি Logo চুনারুঘাটে ১৭ কেজি গাঁজা সহ কারবারি গ্রেপ্তার Logo ৪র্থ বারের মতো জেলার শ্রেষ্ঠ হলেন চুনারুঘাট থানার এসআই লিটন রায় Logo ব্যারিস্টার সুমনকে হত্যার পরিকল্পনাকারী সোহাগ গ্রেফতার Logo ভারতে পালিয়ে যাওয়ার সময় হত্যা মামলার আসামি জালাল গ্রেপ্তার Logo ব্যারিস্টার সুমনকে হত্যার পরিকল্পনার ঘটনায় চুনারুঘাটে সংবাদ সম্মেলন ও প্রতিবাদ সভা Logo চুনারুঘাটে বঙ্গবন্ধু পরিষদের সহ-সভাপতি নির্বাচিত হলেন তৌফিক মিয়া তালুকদার Logo ব্যারিস্টার সুমনের হত্যার পরিকল্পনারকারীদের গ্রেফতারে দাবীতে চুনারুঘাটে মাথায় কাফনের কাপড় বেঁধে প্রতিবাদ  Logo ব্যারিস্টার সুমনকে মেরে ফেলার  হুমকি-ভক্তদের ক্ষোভ  Logo ফুলে সাজানো গাড়ির শোভাযাত্রায় শেষ কর্মদিবস শেষে চেয়ারম্যান আব্দুল কাদির লস্করকে রাজকীয় বিদায়

চুনারুঘাট সীমান্তের মাদক সম্রাট জাহিদ ফের র‍্যাবের হাতে আটক

  • নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ১১:২৭:৩৩ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০২২
  • ২৩৫ বার পড়া হয়েছে

আব্দুর রাজ্জাক রাজু, চুনারুঘাট: চুনারুঘাট সীমান্তের মাদক সম্রাট রমজান আহমেদ জাহিদ (৩৫) কে আটক করেছে র্যাব-৯। উপজেলার সে দুধপাতিল গ্রামের মৃত রজব আলীর পুত্র। আজ (১৯ ফেব্রুয়ারি) শনিবার বিকালে বাল্লা সীমান্তের আসামপাড়া বাজার থেকে তাকে আটক করা হয়। গত ৩০ নভেম্বর ১০ কেজি গাঁজাসহ জাহিদ কে বাহুবল উপজেলায় আটক করে মাদক আইনে মামলা দেয় র্যাব। বাহুবল থানার মামলা নং-১৫,৩০-১১-২০২১,ধারা ৩৬(১) ১৯ (খ)/৪১ মাদক নিয়ন্ত্রণ আইন। সুচতুর মাদক ব্যবসায়ী জাহিদ আদালতে মিথ্যা প্রতারণা করে ভুল তথ্য প্রদান করে বলে তার মুক্তিযোদ্ধা চাচা ওইদিন মারা গেছেন।চাচাকে এক নজর দেখতে ও দাফন কাপন করতে এবং তার বোনের বিয়ে দিতে এক সপ্তাহের অন্তর্বতী জামিন চায়। আদালত মৃত্যুর বিষয়টি শুনে মানবিক কারনে তাকে ১ সপ্তাহের জামিন মঞ্জুর করেন। মূলত তার তথ্য গুলো ছিল মিথ্যা সাজানো। তার কোন চাচা মারা যান নি এবং তার বোনের বিয়ে ছিল না। প্রতারক জাহিদ পরদিন জেল থেকে বের হয়ে-ই মোবাইল ফেসবুক লাইভে এসে বক্তব্য রাখে যা আদালত অবমাননার সামিল এবং ১ সপ্তাহ পর আর কোর্টে হাজির হয়নি সে। সীমান্তে পুনরায় তার মাদক ব্যবসার তৎপরতা চালায়। বিষয়ক এলাকার জনপ্রতিনিধি ও সুশিল সমাজের চোঁখে পড়লে তারা র্যাব কে জানান। র্যাব তার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরওয়া পেয়ে শনিবার বিকেলে আটক করে। এলাকাবাসী জানান সীমান্তের কাটাতার থেকে জাহিদের বাড়ি ৪/৫ শত মিটার হবে। সেই সুবাদে জাহিদ সহজেই মাদক সংগ্রহ করে উপজেলা পর্যায়ের কয়েকজনের মাদকাশক্ত নেতাদের মধ্যে ভারতীয় মদ সরবরাহ করত।নিজেদের ফায়দা হাসিলের জন্য এক সময় জাহিদ কে দলীয় পদ দিয়ে ক্ষমতাসীন করে তারা। সেও নেতাদের কাছ থেকে ক্ষমতা পেয়ে সিমান্তে মাদকের সিন্ডিকেট তৈরী করে হয়ে যায় গডফাদার । দল বড় করে সে এখন সীমান্তের সকল অপরাধ নিয়ন্ত্রন করছে।মাদক ব্যবসায়ী ও চোরা-কারবারি দের মাঝে ঝগড়া বিবাদ হলে জাহিদ উপজেলা নেতাদের নিয়ে মিমাংশা করে দেয় প্রতিনিয়ত।গত ৫ বছরে কোটি টাকা রোজগার করেছে এক সময়ের নুন আনতে পান্তা পুড়ানো ঘরের ছেলে জাহিদ। স্থানীয় গাজিপুর ইউনিয়ন চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আলী বলেন,দায়িত্ব নেয়ার পর থেকেই জাহিদ এর ব্যাপারে মাদক সংশ্লিষ্টার খবর আসে।বিষয়টি আমি দুধপাতিল গ্রামের বিশিষ্ট মুরুব্বিদের অবগত করেছি। সিমান্তে মাদক বন্ধ করতে প্রশাসন কে সাথে নিয়ে জনসচেতনতা মুলক ব্যবস্থা নিব।

ট্যাগস :
আপলোডকারীর তথ্য

খন্দকার আলাউদ্দিন

হ্যালো, আমি খন্দকার আলাউদ্দিন, আপনাদের চারিপাশের সংবাদ দিয়ে আমাদের সহযোগিতা করুন।
জনপ্রিয় সংবাদ

ব্যারিস্টার সুমন এমপিকে সংবর্ধনা দিল চুনারুঘাট ব্যবসায়ী কল্যাণ সমিতি

চুনারুঘাট সীমান্তের মাদক সম্রাট জাহিদ ফের র‍্যাবের হাতে আটক

আপডেট সময় ১১:২৭:৩৩ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০২২

আব্দুর রাজ্জাক রাজু, চুনারুঘাট: চুনারুঘাট সীমান্তের মাদক সম্রাট রমজান আহমেদ জাহিদ (৩৫) কে আটক করেছে র্যাব-৯। উপজেলার সে দুধপাতিল গ্রামের মৃত রজব আলীর পুত্র। আজ (১৯ ফেব্রুয়ারি) শনিবার বিকালে বাল্লা সীমান্তের আসামপাড়া বাজার থেকে তাকে আটক করা হয়। গত ৩০ নভেম্বর ১০ কেজি গাঁজাসহ জাহিদ কে বাহুবল উপজেলায় আটক করে মাদক আইনে মামলা দেয় র্যাব। বাহুবল থানার মামলা নং-১৫,৩০-১১-২০২১,ধারা ৩৬(১) ১৯ (খ)/৪১ মাদক নিয়ন্ত্রণ আইন। সুচতুর মাদক ব্যবসায়ী জাহিদ আদালতে মিথ্যা প্রতারণা করে ভুল তথ্য প্রদান করে বলে তার মুক্তিযোদ্ধা চাচা ওইদিন মারা গেছেন।চাচাকে এক নজর দেখতে ও দাফন কাপন করতে এবং তার বোনের বিয়ে দিতে এক সপ্তাহের অন্তর্বতী জামিন চায়। আদালত মৃত্যুর বিষয়টি শুনে মানবিক কারনে তাকে ১ সপ্তাহের জামিন মঞ্জুর করেন। মূলত তার তথ্য গুলো ছিল মিথ্যা সাজানো। তার কোন চাচা মারা যান নি এবং তার বোনের বিয়ে ছিল না। প্রতারক জাহিদ পরদিন জেল থেকে বের হয়ে-ই মোবাইল ফেসবুক লাইভে এসে বক্তব্য রাখে যা আদালত অবমাননার সামিল এবং ১ সপ্তাহ পর আর কোর্টে হাজির হয়নি সে। সীমান্তে পুনরায় তার মাদক ব্যবসার তৎপরতা চালায়। বিষয়ক এলাকার জনপ্রতিনিধি ও সুশিল সমাজের চোঁখে পড়লে তারা র্যাব কে জানান। র্যাব তার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরওয়া পেয়ে শনিবার বিকেলে আটক করে। এলাকাবাসী জানান সীমান্তের কাটাতার থেকে জাহিদের বাড়ি ৪/৫ শত মিটার হবে। সেই সুবাদে জাহিদ সহজেই মাদক সংগ্রহ করে উপজেলা পর্যায়ের কয়েকজনের মাদকাশক্ত নেতাদের মধ্যে ভারতীয় মদ সরবরাহ করত।নিজেদের ফায়দা হাসিলের জন্য এক সময় জাহিদ কে দলীয় পদ দিয়ে ক্ষমতাসীন করে তারা। সেও নেতাদের কাছ থেকে ক্ষমতা পেয়ে সিমান্তে মাদকের সিন্ডিকেট তৈরী করে হয়ে যায় গডফাদার । দল বড় করে সে এখন সীমান্তের সকল অপরাধ নিয়ন্ত্রন করছে।মাদক ব্যবসায়ী ও চোরা-কারবারি দের মাঝে ঝগড়া বিবাদ হলে জাহিদ উপজেলা নেতাদের নিয়ে মিমাংশা করে দেয় প্রতিনিয়ত।গত ৫ বছরে কোটি টাকা রোজগার করেছে এক সময়ের নুন আনতে পান্তা পুড়ানো ঘরের ছেলে জাহিদ। স্থানীয় গাজিপুর ইউনিয়ন চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আলী বলেন,দায়িত্ব নেয়ার পর থেকেই জাহিদ এর ব্যাপারে মাদক সংশ্লিষ্টার খবর আসে।বিষয়টি আমি দুধপাতিল গ্রামের বিশিষ্ট মুরুব্বিদের অবগত করেছি। সিমান্তে মাদক বন্ধ করতে প্রশাসন কে সাথে নিয়ে জনসচেতনতা মুলক ব্যবস্থা নিব।