হবিগঞ্জ ০৯:১১ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৮ মে ২০২৪, ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
Logo ২২ দিন অন্ধকারে থাকার পর ব্যারিস্টার সুমনের সহযোগিতায় বিদ্যুৎ সংযোগ পেল ৩৪ টি পরিবার Logo মাধবপুরে আগুনে পুড়ে ছাই হলো মিলনের বেঁচে থাকার অবলম্বন Logo চুনারুঘাট উপজেলা নির্বাচনে ১৭ প্রার্থীর মনোনয়ন পত্র দাখিল Logo সাতছড়ি জাতীয় উদ্যান সহ-ব্যবস্থাপনা কমিটি গঠন Logo বিদ্যুৎপৃষ্ঠে নিহতের পরিবারের পাশে ব্যারিস্টার সুমন-এমপি Logo টেকনাফের ব্যাবসায়ী ৫শ’ পিছ ইয়াবাসহ চুনারুঘাটে গ্রেপ্তার Logo চুনারুঘাটে তীব্র দাবদাহে সুপেয় পানি ও খাবার স্যালাইন বিতরণ Logo শেখ হাসিনার আধুনিক চিন্তা ধারায় বদলে গেল কৃষিখাত, ব্যারিস্টার সুমন Logo কথায় কথায় বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিক তাদের কাম কি? মানুষের টাকা মেরে দেয়া, ব্যারিস্টার সুমন Logo বাহুবলে অবৈধভাবে মাটি উত্তোলন, জরিমানা ৫০ হাজার টাকা

মাধবপুর চা-বাগানে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের লোকজনের ওপর মাদক ব্যবসায়ীদের হামলা, আহত ৩

ক্রেতা সেজে হবিগঞ্জ মাদকদ্রব্য অধিদপ্তরের লোকজন ১শ বোতল ফেনসিডিলসহ মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করার পর সংঘবদ্ধ চোরাকারবারীরা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের লোকজনের ওপর হামলা চালিয়ে হ্যান্ডকাপ ও ফেনসিডিল চিনিয়ে নিয়ে যায়। আজ মঙ্গলবার বিকাল ৪টার দিকে উপজেলার তেলিয়াপাড়া চা বাগান নাচ ঘরের সামনে এ ঘটনা ঘটেছে। সংঘবদ্ধ মাদক ব্যবসায়ীদের হামলায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের এক সহকারী পরিদর্শক সহ দুই সিপাহী আহত হয়েছেন। আহতা হলেন, হবিগঞ্জ মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রন অধিদপ্তরের সহকারী পরিদর্শক রতন চন্দ্র গোস্বামী, সিপাহী সাদ্দাম হোসেন, সিপাহী তাপস চন্দ্র বৈঞ্চব। পুলিশ খবর পেয়ে আহতদের উদ্ধার করে মাধবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দিয়েছে । পুলিশ হ্যান্ডকাপ ও ফেনসিডিল উদ্ধারের জন্য তেলিয়াপাড়া চা বাগানে অভিযান পরিচালনা করে রাত ৮ দিকে হ্যান্ড উদ্ধার করেছে। তবে হ্যান্ডকাপ নিয়ে পালিয়ে যাওয়া লোককে এখনও শনাক্ত করা যায়নি। এর সত্যতা নিশ্চিত করে হবিগঞ্জ মাদকদ্রব্য অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক এটিএম দিদারুল আলম জানান, মঙ্গলবার বিকেলে হবিগঞ্জ মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের পরিদর্শক এমদাদুল্লাহর নেতৃত্বে তেলিয়াপাড়া চা বাগানে মাদক উদ্ধারের জন্য অভিযানে যায়। এসময় ক্রেতা সেজে চা বাগান নাচ ঘরের সামনে ১শ বোতল ফেনসিডিল সহ এক মাদক ব্যবসায়ীকে হ্যান্ডকাপ পড়ানো মাত্র শীষ মাদক ব্যবসায়ী সন্তোষ তাপস, খোকনের নেতৃত্বে ২০/৩০ জনের সংঘবদ্ধ মাদকব্যবসায়ী অতর্কিত হামলা চালিয়ে হ্যান্ডকাপ ও ফেনসিডিল চিনিয়ে পালিয়ে যায়। মাদকব্যবসায়ীদের হামলায় সহকারী পরিদর্শক রতন চন্দ্র গোস্বামী সিপাহী তাপস চন্দ্র বৈঞ্চম ও সাদ্দাম হোসেন গুরুতর আহত হয়। এ ঘটনায় পরিদর্শক এমদাদুল্লাহ ঘটনা সঙ্গে জড়িত মাদক ব্যবসায়ীদের নামে মাধবপুর থানায় লিখিত অভিযোগ দেওয়ার প্রস্তুতি চলছে।

মাধবপুর থানার ওসি আব্দুর রাজ্জাক জানান, পুলিশ অভিযান চালিয়ে হ্যান্ডকাপ উদ্ধার করেছে। দায়ী ব্যাক্তিদের বিরুদ্ধেঅভিযোগ সাপেক্ষে পুলিশ আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ট্যাগস :
আপলোডকারীর তথ্য

খন্দকার আলাউদ্দিন

হ্যালো, আমি খন্দকার আলাউদ্দিন, আপনাদের চারিপাশের সংবাদ দিয়ে আমাদের সহযোগিতা করুন।
জনপ্রিয় সংবাদ

২২ দিন অন্ধকারে থাকার পর ব্যারিস্টার সুমনের সহযোগিতায় বিদ্যুৎ সংযোগ পেল ৩৪ টি পরিবার

মাধবপুর চা-বাগানে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের লোকজনের ওপর মাদক ব্যবসায়ীদের হামলা, আহত ৩

আপডেট সময় ০৮:৫৭:০৫ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২২ মার্চ ২০২২

ক্রেতা সেজে হবিগঞ্জ মাদকদ্রব্য অধিদপ্তরের লোকজন ১শ বোতল ফেনসিডিলসহ মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করার পর সংঘবদ্ধ চোরাকারবারীরা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের লোকজনের ওপর হামলা চালিয়ে হ্যান্ডকাপ ও ফেনসিডিল চিনিয়ে নিয়ে যায়। আজ মঙ্গলবার বিকাল ৪টার দিকে উপজেলার তেলিয়াপাড়া চা বাগান নাচ ঘরের সামনে এ ঘটনা ঘটেছে। সংঘবদ্ধ মাদক ব্যবসায়ীদের হামলায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের এক সহকারী পরিদর্শক সহ দুই সিপাহী আহত হয়েছেন। আহতা হলেন, হবিগঞ্জ মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রন অধিদপ্তরের সহকারী পরিদর্শক রতন চন্দ্র গোস্বামী, সিপাহী সাদ্দাম হোসেন, সিপাহী তাপস চন্দ্র বৈঞ্চব। পুলিশ খবর পেয়ে আহতদের উদ্ধার করে মাধবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দিয়েছে । পুলিশ হ্যান্ডকাপ ও ফেনসিডিল উদ্ধারের জন্য তেলিয়াপাড়া চা বাগানে অভিযান পরিচালনা করে রাত ৮ দিকে হ্যান্ড উদ্ধার করেছে। তবে হ্যান্ডকাপ নিয়ে পালিয়ে যাওয়া লোককে এখনও শনাক্ত করা যায়নি। এর সত্যতা নিশ্চিত করে হবিগঞ্জ মাদকদ্রব্য অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক এটিএম দিদারুল আলম জানান, মঙ্গলবার বিকেলে হবিগঞ্জ মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের পরিদর্শক এমদাদুল্লাহর নেতৃত্বে তেলিয়াপাড়া চা বাগানে মাদক উদ্ধারের জন্য অভিযানে যায়। এসময় ক্রেতা সেজে চা বাগান নাচ ঘরের সামনে ১শ বোতল ফেনসিডিল সহ এক মাদক ব্যবসায়ীকে হ্যান্ডকাপ পড়ানো মাত্র শীষ মাদক ব্যবসায়ী সন্তোষ তাপস, খোকনের নেতৃত্বে ২০/৩০ জনের সংঘবদ্ধ মাদকব্যবসায়ী অতর্কিত হামলা চালিয়ে হ্যান্ডকাপ ও ফেনসিডিল চিনিয়ে পালিয়ে যায়। মাদকব্যবসায়ীদের হামলায় সহকারী পরিদর্শক রতন চন্দ্র গোস্বামী সিপাহী তাপস চন্দ্র বৈঞ্চম ও সাদ্দাম হোসেন গুরুতর আহত হয়। এ ঘটনায় পরিদর্শক এমদাদুল্লাহ ঘটনা সঙ্গে জড়িত মাদক ব্যবসায়ীদের নামে মাধবপুর থানায় লিখিত অভিযোগ দেওয়ার প্রস্তুতি চলছে।

মাধবপুর থানার ওসি আব্দুর রাজ্জাক জানান, পুলিশ অভিযান চালিয়ে হ্যান্ডকাপ উদ্ধার করেছে। দায়ী ব্যাক্তিদের বিরুদ্ধেঅভিযোগ সাপেক্ষে পুলিশ আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।