হবিগঞ্জ ০৯:০৮ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৮ মে ২০২৪, ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
Logo ২২ দিন অন্ধকারে থাকার পর ব্যারিস্টার সুমনের সহযোগিতায় বিদ্যুৎ সংযোগ পেল ৩৪ টি পরিবার Logo মাধবপুরে আগুনে পুড়ে ছাই হলো মিলনের বেঁচে থাকার অবলম্বন Logo চুনারুঘাট উপজেলা নির্বাচনে ১৭ প্রার্থীর মনোনয়ন পত্র দাখিল Logo সাতছড়ি জাতীয় উদ্যান সহ-ব্যবস্থাপনা কমিটি গঠন Logo বিদ্যুৎপৃষ্ঠে নিহতের পরিবারের পাশে ব্যারিস্টার সুমন-এমপি Logo টেকনাফের ব্যাবসায়ী ৫শ’ পিছ ইয়াবাসহ চুনারুঘাটে গ্রেপ্তার Logo চুনারুঘাটে তীব্র দাবদাহে সুপেয় পানি ও খাবার স্যালাইন বিতরণ Logo শেখ হাসিনার আধুনিক চিন্তা ধারায় বদলে গেল কৃষিখাত, ব্যারিস্টার সুমন Logo কথায় কথায় বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিক তাদের কাম কি? মানুষের টাকা মেরে দেয়া, ব্যারিস্টার সুমন Logo বাহুবলে অবৈধভাবে মাটি উত্তোলন, জরিমানা ৫০ হাজার টাকা

বাহুবলে কৃষি উপ-সহকারী নুরুল ইসলামের অপসারণের দাবীতে ভুক্তভোগী কৃষকদের মানববন্ধন।

বাহুবল উপজেলা কৃষি অফিসে কর্মরত উপ-সহকারী নুরুল ইসলাম খানের বিরুদ্ধে কৃষকের কাছ থেকে ঘুষ গ্রহণ ও অনিয়ম দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে, এ ঘটনায় তার অপসারণের দাবীতে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে স্থানীয় কৃষকেরা।

আজ মঙ্গলবার ২৬ সেপ্টেম্বর বিকাল ১১ টায় উপজেলা পরিষদের সামনে বিশাল মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে ভুক্তভোগীরা।

মানববন্ধন কর্মসূচিতে বক্তারা অভিযোগ করে বলেন দিনমজুর কৃষককে যান্ত্রিক প্রকল্পের আওতায় ধান ভাঙ্গার পাওয়ার প্রেসার মেশিন দেয়ার কথা বলে ১০ হাজার টাকা ঘুষ নেন নুরুল ইসলাম খান।এ ঘটনায় তিনি সিলেট খামারবাড়ি সহ বিভিন্ন দপ্তরে তার বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেন ভুক্তভোগী ইলিয়াস আলী ইউসুফ।

জানা যায়, বাহুবল উপজেলার ৭নং ভাদেশ্বর ইউনিয়নের যশপাল গ্রামের মৃত হোছন আলীর ছেলে মোঃ ইলিয়াস আলী ইউসুফ বিগত রবি-২৩ মৌসুমে খামার প্রকল্পের আওতায় ভর্তুকি মূল্যে ধান ভাঙ্গার প্রেসার মেশিন নেয়ার জন্য উপজেলা কৃষি অফিসে আসেন।

এসময় ভাদেশ্বর ইউনিয়নের দায়িত্বপ্রাপ্ত উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা নুরুল ইসলাম খানের সাথে দেখা হয় তার। ঘন্টাব্যাপী আলাপ আলোচনার পর কোন আবেদন ছাড়াই ইলিয়াসকে মেশিন দিতে সম্মতি জানান নুরুল ইসলাম খান।

বিনিময়ে কিছু টাকা দিলেই চলবে! উপ-সহকারীর এ কথা শুনে ইলিয়াস আলী সরল বিশ্বাসে তাকে ১০ হাজার টাকা ঘুষ দেন।
কিন্তু ২৩ মৌসুম পাড় হয়ে গেলেও উপ-সহকারী নুরুল ইসলাম খান তাকে মেশিন দিবেন দূরের কথা কোন পাত্তাই দিচ্ছেন না।

পরবর্তীতে ভুক্তভোগী ইলিয়াস আলী ইউসুফ উপ-সহকারী নুরুল ইসলাম খানের বিরুদ্ধে গত ৫/৯/২৩ তারিখ সিলেট খাবারবাড়ি সহ বিভিন্ন দপ্তরে অভিযোগ দায়ের করেন।

এ ঘটনায় গত ১০ সেপ্টেম্বর রবিবার বেলা প্রায় ২ টার দিকে বিষয়টি জানতে সরেজমিনে ইলিয়াস আলীর বাড়িতে যান উপজেলা কৃষি অফিসার সাজ্জাদ হোসেন। তিনি ইলিয়াস আলীর বাড়িতে গিয়ে তার স্ত্রী সন্তানের সামনে তাকে পুলিশ দিয়ে রিমান্ডে নিয়ে পিটিয়ে হাড্ডি-গুড্ডি ভেঙ্গে দিবেন বলে হুমকি ধামকি দেন।

এক পর্যায়ে স্থানীয় গ্রামবাসী এগিয়ে আসলে তিনি ইলিয়াস আলীর বাড়ি থেকে দ্রুত বের হয়ে চলে আসেন।

এ ঘটনার প্রতিকার চেয়ে সোমবার দুপুরে যশপাল গ্রামের শতাধিক মানুষ মিছিল সহকারে বাহুবল উপজেলা নির্বাহী অফিসার মহুয়া শারমিন ফাতেমার ও কৃষি অফিসার সাজ্জাদ হোসেনের নিকট উপ-সহকারী নুরুল ইসলাম খানের বিরুদ্ধে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন এবং অবিলম্বে নুরুল ইসলাম খানকে অপসারণের দাবী জানান বিক্ষোভকারীরা।

এর পরিপ্রেক্ষীতে নুরুল ইসলাম খানকে সুনামগঞ্জে বদলী করে কর্তৃপক্ষ, কিন্তু বদলীর ৫ দিনের মাথায় বদলী বালিত করে পুনরায় দায়িত্ব পালনের অনুমতি দেয় কর্তৃপক্ষ।

এ ঘটনায় ভুক্তভোগী কৃষকেরা মঙ্গলবার সকাল ১১ টায় নুরুল ইসলাম খানের অবিলম্বে অপসারণের দাবীতে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেন।

মানববন্ধন কর্মসূচিতে বক্তব্য রাখেন, ভুক্তভোগী ইলিয়াস আলী ইউসুফ, আমির আলী, গীতিকার এম আর মামুন সহ বিভিন্ন রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ ও ভুক্তভোগী কৃষকেরা।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে অতিরিক্ত বিভাগীয় পরিচালক মোঃ মোশাররফ হোসেন খান বলেন,অপরাধী যে-ই হোক তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ট্যাগস :
আপলোডকারীর তথ্য

খন্দকার আলাউদ্দিন

হ্যালো, আমি খন্দকার আলাউদ্দিন, আপনাদের চারিপাশের সংবাদ দিয়ে আমাদের সহযোগিতা করুন।
জনপ্রিয় সংবাদ

২২ দিন অন্ধকারে থাকার পর ব্যারিস্টার সুমনের সহযোগিতায় বিদ্যুৎ সংযোগ পেল ৩৪ টি পরিবার

বাহুবলে কৃষি উপ-সহকারী নুরুল ইসলামের অপসারণের দাবীতে ভুক্তভোগী কৃষকদের মানববন্ধন।

আপডেট সময় ০৩:২৬:১১ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২৩

বাহুবল উপজেলা কৃষি অফিসে কর্মরত উপ-সহকারী নুরুল ইসলাম খানের বিরুদ্ধে কৃষকের কাছ থেকে ঘুষ গ্রহণ ও অনিয়ম দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে, এ ঘটনায় তার অপসারণের দাবীতে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে স্থানীয় কৃষকেরা।

আজ মঙ্গলবার ২৬ সেপ্টেম্বর বিকাল ১১ টায় উপজেলা পরিষদের সামনে বিশাল মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে ভুক্তভোগীরা।

মানববন্ধন কর্মসূচিতে বক্তারা অভিযোগ করে বলেন দিনমজুর কৃষককে যান্ত্রিক প্রকল্পের আওতায় ধান ভাঙ্গার পাওয়ার প্রেসার মেশিন দেয়ার কথা বলে ১০ হাজার টাকা ঘুষ নেন নুরুল ইসলাম খান।এ ঘটনায় তিনি সিলেট খামারবাড়ি সহ বিভিন্ন দপ্তরে তার বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেন ভুক্তভোগী ইলিয়াস আলী ইউসুফ।

জানা যায়, বাহুবল উপজেলার ৭নং ভাদেশ্বর ইউনিয়নের যশপাল গ্রামের মৃত হোছন আলীর ছেলে মোঃ ইলিয়াস আলী ইউসুফ বিগত রবি-২৩ মৌসুমে খামার প্রকল্পের আওতায় ভর্তুকি মূল্যে ধান ভাঙ্গার প্রেসার মেশিন নেয়ার জন্য উপজেলা কৃষি অফিসে আসেন।

এসময় ভাদেশ্বর ইউনিয়নের দায়িত্বপ্রাপ্ত উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা নুরুল ইসলাম খানের সাথে দেখা হয় তার। ঘন্টাব্যাপী আলাপ আলোচনার পর কোন আবেদন ছাড়াই ইলিয়াসকে মেশিন দিতে সম্মতি জানান নুরুল ইসলাম খান।

বিনিময়ে কিছু টাকা দিলেই চলবে! উপ-সহকারীর এ কথা শুনে ইলিয়াস আলী সরল বিশ্বাসে তাকে ১০ হাজার টাকা ঘুষ দেন।
কিন্তু ২৩ মৌসুম পাড় হয়ে গেলেও উপ-সহকারী নুরুল ইসলাম খান তাকে মেশিন দিবেন দূরের কথা কোন পাত্তাই দিচ্ছেন না।

পরবর্তীতে ভুক্তভোগী ইলিয়াস আলী ইউসুফ উপ-সহকারী নুরুল ইসলাম খানের বিরুদ্ধে গত ৫/৯/২৩ তারিখ সিলেট খাবারবাড়ি সহ বিভিন্ন দপ্তরে অভিযোগ দায়ের করেন।

এ ঘটনায় গত ১০ সেপ্টেম্বর রবিবার বেলা প্রায় ২ টার দিকে বিষয়টি জানতে সরেজমিনে ইলিয়াস আলীর বাড়িতে যান উপজেলা কৃষি অফিসার সাজ্জাদ হোসেন। তিনি ইলিয়াস আলীর বাড়িতে গিয়ে তার স্ত্রী সন্তানের সামনে তাকে পুলিশ দিয়ে রিমান্ডে নিয়ে পিটিয়ে হাড্ডি-গুড্ডি ভেঙ্গে দিবেন বলে হুমকি ধামকি দেন।

এক পর্যায়ে স্থানীয় গ্রামবাসী এগিয়ে আসলে তিনি ইলিয়াস আলীর বাড়ি থেকে দ্রুত বের হয়ে চলে আসেন।

এ ঘটনার প্রতিকার চেয়ে সোমবার দুপুরে যশপাল গ্রামের শতাধিক মানুষ মিছিল সহকারে বাহুবল উপজেলা নির্বাহী অফিসার মহুয়া শারমিন ফাতেমার ও কৃষি অফিসার সাজ্জাদ হোসেনের নিকট উপ-সহকারী নুরুল ইসলাম খানের বিরুদ্ধে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন এবং অবিলম্বে নুরুল ইসলাম খানকে অপসারণের দাবী জানান বিক্ষোভকারীরা।

এর পরিপ্রেক্ষীতে নুরুল ইসলাম খানকে সুনামগঞ্জে বদলী করে কর্তৃপক্ষ, কিন্তু বদলীর ৫ দিনের মাথায় বদলী বালিত করে পুনরায় দায়িত্ব পালনের অনুমতি দেয় কর্তৃপক্ষ।

এ ঘটনায় ভুক্তভোগী কৃষকেরা মঙ্গলবার সকাল ১১ টায় নুরুল ইসলাম খানের অবিলম্বে অপসারণের দাবীতে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেন।

মানববন্ধন কর্মসূচিতে বক্তব্য রাখেন, ভুক্তভোগী ইলিয়াস আলী ইউসুফ, আমির আলী, গীতিকার এম আর মামুন সহ বিভিন্ন রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ ও ভুক্তভোগী কৃষকেরা।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে অতিরিক্ত বিভাগীয় পরিচালক মোঃ মোশাররফ হোসেন খান বলেন,অপরাধী যে-ই হোক তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়া হবে।