হবিগঞ্জ ১০:১৭ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৮ মে ২০২৪, ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
Logo ২২ দিন অন্ধকারে থাকার পর ব্যারিস্টার সুমনের সহযোগিতায় বিদ্যুৎ সংযোগ পেল ৩৪ টি পরিবার Logo মাধবপুরে আগুনে পুড়ে ছাই হলো মিলনের বেঁচে থাকার অবলম্বন Logo চুনারুঘাট উপজেলা নির্বাচনে ১৭ প্রার্থীর মনোনয়ন পত্র দাখিল Logo সাতছড়ি জাতীয় উদ্যান সহ-ব্যবস্থাপনা কমিটি গঠন Logo বিদ্যুৎপৃষ্ঠে নিহতের পরিবারের পাশে ব্যারিস্টার সুমন-এমপি Logo টেকনাফের ব্যাবসায়ী ৫শ’ পিছ ইয়াবাসহ চুনারুঘাটে গ্রেপ্তার Logo চুনারুঘাটে তীব্র দাবদাহে সুপেয় পানি ও খাবার স্যালাইন বিতরণ Logo শেখ হাসিনার আধুনিক চিন্তা ধারায় বদলে গেল কৃষিখাত, ব্যারিস্টার সুমন Logo কথায় কথায় বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিক তাদের কাম কি? মানুষের টাকা মেরে দেয়া, ব্যারিস্টার সুমন Logo বাহুবলে অবৈধভাবে মাটি উত্তোলন, জরিমানা ৫০ হাজার টাকা

শোক দিবসের অনুষ্ঠানে সাঈদীর জন্য দোয়া, ইমামসহ ২ জন আটক

শোক দিবসের অনুষ্ঠানে সাঈদীর জন্য দোয়া, ইমামসহ ২ জন আটক। গত মঙ্গলবার বিকেলে নওগাঁ শহরের পার-নওগাঁ তাজের মোড়ে শহীদ মিনারে পৌর আওয়ামী লীগের ব্যানারে দোয়া মাহফিল ও খাদ্য বিতরণ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

নওগাঁয় বঙ্গবন্ধুর শাহাদতবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে দোয়া মাহফিল ও খাদ্য বিতরণ অনুষ্ঠানে যুদ্ধাপরাধী দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদীর জন্য দোয়া করার অভিযোগ মিলেছে।

এ ঘটনায় মোয়াজ্জেম হোসেন নামে মসজিদের ইমাম ও হাফিজুর রহমান নামে স্থানীয় এক ব্যবসায়ী জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেছে পুলিশ। গত মঙ্গলবার বিকেলে শহরের পার-নওগাঁ তাজের মোড়ে শহীদ মিনারে নওগাঁ পৌর আওয়ামী লীগের ব্যানারে আয়োজিত অনুষ্ঠানে এই ঘটনা ঘটে।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন সদর আসনের সংসদ সদস্য ব্যারিস্টার নিজাম উদ্দিন জলিল জন। আটক মোয়াজ্জেম হোসেন পার-নওগাঁ বায়তুল মামুর জামে মসজিদের ইমাম।

তার গ্রামের বাড়ি জেলার পত্নীতলা উপজেলায়। আর হাফিজুর রহমান হলেন তাজের মোড়ের রড-সিমেন্ট ব্যবসায়ী। জানা যায়, নওগাঁ পৌর আওয়ামী লীগের ব্যানারে শহীদ মিনারে দোয়া মাহফিল ও খাদ্য বিতরণের আয়োজন করা হয়।

এতে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, তার পরিবারবর্গসহ ১৫ আগস্ট শহীদদের আত্মার শান্তি কামনায় দোয়া করা হয়। এক পর্যায়ে মসজিদের ইমাম মোয়াজ্জেম হোসেন আমৃত্যু কারাদণ্ড ভোগকালে মারা যাওয়া সাঈদীর জন্য দোয়া চাওয়া শুরু করেন।

এ সময় উপস্থিত নেতা-কর্মীরা নিষেধ করলেও তিনি সাঈদীর মৃত্যুতে দোয়া পাঠ চালিয়ে যান। এরপর মসজিদের ইমাম মোয়াজ্জেম হোসেনকে শহীদ মিনারের পাশে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করা হয়।

তখন তিনি তাজের মোড়ের রড-সিমেন্ট ব্যবসায়ী হাফিজুর রহমান তাকে সাঈদীর মৃত্যুতে দোয়া পাঠের জন্য বলেছেন বলে জানান। এরপর পুলিশে সোপর্দ করা হয় মোয়াজ্জেমকে।

থানায় এই ইমামকে জিজ্ঞাসাবাদে হাফিজুরের নাম উঠে আসায় তাকেও জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় নেওয়া হয়। নওগাঁ পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি দেওয়ান ছেকার আহম্মেদ শিষান জানান, পৌর আওয়ামী লীগের ব্যানারে কে এই আয়োজন করেছে তা জানা নেই।

এখানে কী হয়েছে তাও কিছু জানা নেই। পার-নওগাঁ বয়তুল মামুর জামে মসজিদ কমিটির সাধারণ সম্পাদক রতন হাজি জানান, দুপুরে জোহরের নামাজের সময়ও মসজিদের ইমাম মোয়াজ্জেম হোসেন যুদ্ধাপরাধী সাঈদীর মৃত্যুতে দোয়া চেয়েছেন।

নওগাঁ সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত পুলিশ কর্মকর্তা (ওসি) ফয়সাল বিন আহসান দৈনিক বাংলাকে বলেন, মসজিদের ইমাম মোয়াজ্জেম হোসেনকে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে।

এরপর তার দেওয়া তথ্য অনুযায়ী ব্যবসায়ী হাফিজুর রহমানকেও জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পুলিশের হেফাজতে নেওয়া হয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদ চলছে। পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ট্যাগস :
আপলোডকারীর তথ্য

খন্দকার আলাউদ্দিন

হ্যালো, আমি খন্দকার আলাউদ্দিন, আপনাদের চারিপাশের সংবাদ দিয়ে আমাদের সহযোগিতা করুন।
জনপ্রিয় সংবাদ

২২ দিন অন্ধকারে থাকার পর ব্যারিস্টার সুমনের সহযোগিতায় বিদ্যুৎ সংযোগ পেল ৩৪ টি পরিবার

শোক দিবসের অনুষ্ঠানে সাঈদীর জন্য দোয়া, ইমামসহ ২ জন আটক

আপডেট সময় ১০:৩৪:২৭ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৬ অগাস্ট ২০২৩

শোক দিবসের অনুষ্ঠানে সাঈদীর জন্য দোয়া, ইমামসহ ২ জন আটক। গত মঙ্গলবার বিকেলে নওগাঁ শহরের পার-নওগাঁ তাজের মোড়ে শহীদ মিনারে পৌর আওয়ামী লীগের ব্যানারে দোয়া মাহফিল ও খাদ্য বিতরণ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

নওগাঁয় বঙ্গবন্ধুর শাহাদতবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে দোয়া মাহফিল ও খাদ্য বিতরণ অনুষ্ঠানে যুদ্ধাপরাধী দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদীর জন্য দোয়া করার অভিযোগ মিলেছে।

এ ঘটনায় মোয়াজ্জেম হোসেন নামে মসজিদের ইমাম ও হাফিজুর রহমান নামে স্থানীয় এক ব্যবসায়ী জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেছে পুলিশ। গত মঙ্গলবার বিকেলে শহরের পার-নওগাঁ তাজের মোড়ে শহীদ মিনারে নওগাঁ পৌর আওয়ামী লীগের ব্যানারে আয়োজিত অনুষ্ঠানে এই ঘটনা ঘটে।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন সদর আসনের সংসদ সদস্য ব্যারিস্টার নিজাম উদ্দিন জলিল জন। আটক মোয়াজ্জেম হোসেন পার-নওগাঁ বায়তুল মামুর জামে মসজিদের ইমাম।

তার গ্রামের বাড়ি জেলার পত্নীতলা উপজেলায়। আর হাফিজুর রহমান হলেন তাজের মোড়ের রড-সিমেন্ট ব্যবসায়ী। জানা যায়, নওগাঁ পৌর আওয়ামী লীগের ব্যানারে শহীদ মিনারে দোয়া মাহফিল ও খাদ্য বিতরণের আয়োজন করা হয়।

এতে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, তার পরিবারবর্গসহ ১৫ আগস্ট শহীদদের আত্মার শান্তি কামনায় দোয়া করা হয়। এক পর্যায়ে মসজিদের ইমাম মোয়াজ্জেম হোসেন আমৃত্যু কারাদণ্ড ভোগকালে মারা যাওয়া সাঈদীর জন্য দোয়া চাওয়া শুরু করেন।

এ সময় উপস্থিত নেতা-কর্মীরা নিষেধ করলেও তিনি সাঈদীর মৃত্যুতে দোয়া পাঠ চালিয়ে যান। এরপর মসজিদের ইমাম মোয়াজ্জেম হোসেনকে শহীদ মিনারের পাশে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করা হয়।

তখন তিনি তাজের মোড়ের রড-সিমেন্ট ব্যবসায়ী হাফিজুর রহমান তাকে সাঈদীর মৃত্যুতে দোয়া পাঠের জন্য বলেছেন বলে জানান। এরপর পুলিশে সোপর্দ করা হয় মোয়াজ্জেমকে।

থানায় এই ইমামকে জিজ্ঞাসাবাদে হাফিজুরের নাম উঠে আসায় তাকেও জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় নেওয়া হয়। নওগাঁ পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি দেওয়ান ছেকার আহম্মেদ শিষান জানান, পৌর আওয়ামী লীগের ব্যানারে কে এই আয়োজন করেছে তা জানা নেই।

এখানে কী হয়েছে তাও কিছু জানা নেই। পার-নওগাঁ বয়তুল মামুর জামে মসজিদ কমিটির সাধারণ সম্পাদক রতন হাজি জানান, দুপুরে জোহরের নামাজের সময়ও মসজিদের ইমাম মোয়াজ্জেম হোসেন যুদ্ধাপরাধী সাঈদীর মৃত্যুতে দোয়া চেয়েছেন।

নওগাঁ সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত পুলিশ কর্মকর্তা (ওসি) ফয়সাল বিন আহসান দৈনিক বাংলাকে বলেন, মসজিদের ইমাম মোয়াজ্জেম হোসেনকে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে।

এরপর তার দেওয়া তথ্য অনুযায়ী ব্যবসায়ী হাফিজুর রহমানকেও জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পুলিশের হেফাজতে নেওয়া হয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদ চলছে। পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।