হবিগঞ্জ ০৮:৪০ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২০ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ৮ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
Logo চুনারুঘাট থানার পুলিশের মাদক বিরোধী অভিযানে ১০ কেজি গাঁজাসহ আটক ২ Logo চুনারুঘাট থানা পুলিশের অভিযানে চোরাই টমটম ব্যাটারিসহ গাড়ী উদ্ধার, গ্রেপ্তার-২ Logo মাধবপুরে গাঁজাসহ দুই মাদক কারবারি আটক Logo মাধবপুরে বিপুল পরিমাণ ভারতীয় মদ ও গাঁজাসহ আটক-১ Logo প্রকৃতির প্রতি আমাদের দায়বদ্ধতা আছে : মতবিনিময় সভায় জেলা প্রশাসক Logo জগদীশপুর ইউনিয়নের প্যানেল চেয়ারম্যানের হলেন আরজু মেম্বার Logo বাহুবল হাসপাতালের বাবুর্চির বিরুদ্ধে রান্নাঘরের দর্জা বন্ধ করে নিরীহ এক ব্যক্তিকে মারধোরের অভিযোগ Logo আনন্দঘন পরিবেশ এসএসসি ৯১-ব্যাচ সিলেটের মিলনমেলা সম্পন্ন Logo শাহাজিবাজার রেলওয়ে স্টেশনের সংস্কারের দাবিতে ইয়্যূথ সোশ্যাল অর্গানাইজেশনের মানববন্ধন Logo চুনারঘাট প্রবাসী সামাজিক সংগঠনের সাটিয়াজুরী ইউনিয়ন কমিটি গঠন

চুনারুঘাটে মোবাইল কোর্টের জরিমানার পরও থামছে না করাঙ্গী নদী থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন

চুনারুঘাট উপজেলার ৯নং রানীগাঁও ইউপি’র করাঙ্গী নদী থেকে ড্রেজার মেশিন দিয়ে অবৈধভাবে লাখ লাখ টাকার বালু উত্তোলন করছেন পুলিশ এসল্ট ও বিস্ফোরক আইনের দুটি মামলার আসামী হবিগঞ্জের বিএনপি নেতা গাফফার ও বাপাউবো হবিগঞ্জের রিংকু দেব সহ তিন স্টাফ সিন্ডিকেটরা।

উপজেলার রানীগাঁও করাঙ্গী নদী ভাঙ্গন রোধে প্রতিরক্ষা বাধ নির্মাণ কাজে প্রায় ২৫ লাখ টাকার টেন্ডার হয়। ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান কুষ্টিয়া ভেড়ামারার নির্মাতা কৌশলীর মালিক বাবুল। এ কাজ করানোর দায়িত্ব নেন হবিগঞ্জ বিএনপি নেতা গাফফার গংরা।

বালুর ব্যবস্থা থাকায় তারা বালু না নিয়ে স্থানীয় ও জমির মালিক এবং ইউপি সদস্যর বাধা অমান্য করে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী ও প্রশাসনের চোখ ফাঁকি দিয়ে হবিগঞ্জের গাফফার প্রভাব বিস্তার করে এবং বাপাউবো হবিগঞ্জ অফিসের জনৈক স্টাফ জড়িত রানীগাও গ্রামের শৈলেশ দেব (সলুর) ছেলে রিংকু’র যোগসাজশে তার ভাই পিংকু দেব ও তার ভাতিজা পুলক দেব বালুখেকো ও কাদির গংরা নিয়ম বহির্ভূতভাবে রানীগাঁও করাঙ্গী নদীর বাধ নির্মাণ স্থান নদীতে ড্রেজার মেশিন দিয়ে অবৈধভাবে লাখ লাখ টাকার বালু উত্তোলন করছে গাফ্ফার গং রিংকু সিন্ডিকেটরা।

করাঙ্গী নদী থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করে এ টেন্ডার কাজ করলে উল্লেখিত মাটি বালুর বরাদ্দকৃত প্রায় ১১ লাখ টাকা যাবে কার পেটে? তবে ঐ ৩ জন স্টাফ অফিসার না ঠিকাদার, না তারা গাফফার গ্রুপ বিএনপি নেতা এ প্রশ্ন সবার মাঝে।

তবে অফিস কর্তৃপক্ষের আড়ালে বাপাউবো হবিগঞ্জ অফিসের জনৈক স্টাফ রিংকু দেব সহ ৩ জন দীর্ঘদিন যাবত গাফ্ফার সিন্ডিকেটের সাথে জড়িত হয়ে তারা টেন্ডার কাজ সহ রানীগাঁও করাঙ্গী নদী থেকে অনিয়ম ও অবৈধভাবে সিন্ডিকেটে বালু উত্তোলন কাজে জড়িত বলে স্থানীয়রা জানান।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ওই জনৈক স্টাফরা বিএনপি নেতা গাফ্ফারকে নিয়ে সিন্ডিকেট করে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন ও কাজ করায় রানীগাও স্থানীয়দের মাঝে ক্ষোভ দেখা দিয়েছে।

এদিকে অফিস কর্তৃপক্ষের আড়ালে টেন্ডার কাজ ও অবৈধভাবে বালু উত্তোলনে জড়িত স্টাফদের বিরুদ্ধে বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ড হেড অফিস কর্তৃক ও গোয়েন্দা সংস্থার গোপনীয় তদন্তের মাধ্যমে জড়িতদের বিরুদ্ধে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ ও আইনগত ব্যবস্থা গ্রহনের দাবি জানান রানীগাঁও এলাকার সচেতন ব্যক্তিরা।

তারা জানান, মাঝে মধ্যে কাজে এসে তদারকি করেন বিএনপি নেতা গাফফার ও বাপাউবো হবিগঞ্জের স্টাফ রিংকু দেব, পিওন জামাল ও বড় বাবু নামে ৩ ব্যক্তি রানীগাঁও করাঙ্গী নদী থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করে কাজে জড়িত দেখা যায়।

হবিগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ড অফিসের সহকারী হিসাবরক্ষক রিংকু দেব বলেন, আমার নিজ এলাকায় এ কাজ চলছে। আমাদের দোকানঘরে মালামাল রেখে এবং আমার ভাই ও ভাতিজা কাজে কর্মক্ষেত্রে জড়িত।

আমার বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ মিথ্যা। হবিগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী সামিউল হাসান বলেন, কাজে কোন অনিয়ম হলে, এর দায় কুষ্টিয়া ভেড়ামারার নির্মাতা কৌশুলী ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান নিবে।

সাব-ঠিকাদার যে কেউ হতে পারে। তবে গাফফার সাহেব এ কাজে সংশ্লিষ্ট রয়েছেন। বালু অন্য চর থেকে তোলার কথা। অবৈধভাবে করাঙ্গী নদী থেকে বালু উত্তোলন করলে, তা স্থানীয় প্রশাসন দেখবে।

বাঁধ নির্মাণ কাজে কোন অনিয়ম হবে না, তা আমি দেখব। অফিসের কোন স্টাফ অবৈধভাবে বালু উত্তোলনে ও কাজে জড়িত থাকার বিষয়ে আমি অবগত নই। অফিস কর্তৃপক্ষের আড়ালে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন ও কাজে জড়িত থাকলে বা প্রমাণিত হলে, ব্যবস্থা নেয়া হবে।

তবে বারবার চেষ্টার পরেও তিনি এ কাজের ইস্টিমেট দিতে অনীহা প্রকাশ করেছেন। এতে ২৭ জুলাই ভ্রাম্যমান আদালত অভিযান চালিয়ে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের দায়ে ৩ জনকে আটক ও মোবাইল কোর্টে ৫০ হাজার টাকা অর্থদন্ড আরোপ করেন চুনারুঘাট উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট সিদ্ধার্থ ভৌমিক।

আটককৃতরা হলেন- জেলার শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলার আলাপুর গ্রামের মৃত আব্দুস সত্তারের পুত্র আব্দুল কাদির (কাজল) (৩৮), চুনারুঘাট উপজেলার রাণীগাঁও গ্রামের সন্তোষ দেবের পুত্র ও হবিগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ড অফিসের সহকারী হিসাবরক্ষক রিংকু দেবের আপন ভাতিজা পুলক দেব (১৮) উত্তর রানীগাও গ্রামের মৃত আব্দুর নুরের পুত্র বর্তমান পারকুল বাগানের আব্দুল কাদির (৪২) ওই ৩ ব্যক্তি মুছলেখা ও ৫০ হাজার টাকা অর্থদন্ড দিয়ে ছাড় পান।

ভ্রাম্যমাণ আদালতকে সহযোগিতা করেন চুনারুঘাট থানা পুলিশ। এ বিষয়ে চুনারুঘাট উপজেলা নির্বাহী অফিসার সিদ্ধার্থ ভৌমিক বলেন, করাঙ্গী নদী থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন কাজে তাদেরকে নিষেধ করা হয়েছে।

ট্যাগস :
আপলোডকারীর তথ্য

খন্দকার আলাউদ্দিন

হ্যালো, আমি খন্দকার আলাউদ্দিন, আপনাদের চারিপাশের সংবাদ দিয়ে আমাদের সহযোগিতা করুন।
জনপ্রিয় সংবাদ

চুনারুঘাট থানার পুলিশের মাদক বিরোধী অভিযানে ১০ কেজি গাঁজাসহ আটক ২

চুনারুঘাটে মোবাইল কোর্টের জরিমানার পরও থামছে না করাঙ্গী নদী থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন

আপডেট সময় ০৭:৪২:৩৩ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৪ অগাস্ট ২০২৩

চুনারুঘাট উপজেলার ৯নং রানীগাঁও ইউপি’র করাঙ্গী নদী থেকে ড্রেজার মেশিন দিয়ে অবৈধভাবে লাখ লাখ টাকার বালু উত্তোলন করছেন পুলিশ এসল্ট ও বিস্ফোরক আইনের দুটি মামলার আসামী হবিগঞ্জের বিএনপি নেতা গাফফার ও বাপাউবো হবিগঞ্জের রিংকু দেব সহ তিন স্টাফ সিন্ডিকেটরা।

উপজেলার রানীগাঁও করাঙ্গী নদী ভাঙ্গন রোধে প্রতিরক্ষা বাধ নির্মাণ কাজে প্রায় ২৫ লাখ টাকার টেন্ডার হয়। ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান কুষ্টিয়া ভেড়ামারার নির্মাতা কৌশলীর মালিক বাবুল। এ কাজ করানোর দায়িত্ব নেন হবিগঞ্জ বিএনপি নেতা গাফফার গংরা।

বালুর ব্যবস্থা থাকায় তারা বালু না নিয়ে স্থানীয় ও জমির মালিক এবং ইউপি সদস্যর বাধা অমান্য করে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী ও প্রশাসনের চোখ ফাঁকি দিয়ে হবিগঞ্জের গাফফার প্রভাব বিস্তার করে এবং বাপাউবো হবিগঞ্জ অফিসের জনৈক স্টাফ জড়িত রানীগাও গ্রামের শৈলেশ দেব (সলুর) ছেলে রিংকু’র যোগসাজশে তার ভাই পিংকু দেব ও তার ভাতিজা পুলক দেব বালুখেকো ও কাদির গংরা নিয়ম বহির্ভূতভাবে রানীগাঁও করাঙ্গী নদীর বাধ নির্মাণ স্থান নদীতে ড্রেজার মেশিন দিয়ে অবৈধভাবে লাখ লাখ টাকার বালু উত্তোলন করছে গাফ্ফার গং রিংকু সিন্ডিকেটরা।

করাঙ্গী নদী থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করে এ টেন্ডার কাজ করলে উল্লেখিত মাটি বালুর বরাদ্দকৃত প্রায় ১১ লাখ টাকা যাবে কার পেটে? তবে ঐ ৩ জন স্টাফ অফিসার না ঠিকাদার, না তারা গাফফার গ্রুপ বিএনপি নেতা এ প্রশ্ন সবার মাঝে।

তবে অফিস কর্তৃপক্ষের আড়ালে বাপাউবো হবিগঞ্জ অফিসের জনৈক স্টাফ রিংকু দেব সহ ৩ জন দীর্ঘদিন যাবত গাফ্ফার সিন্ডিকেটের সাথে জড়িত হয়ে তারা টেন্ডার কাজ সহ রানীগাঁও করাঙ্গী নদী থেকে অনিয়ম ও অবৈধভাবে সিন্ডিকেটে বালু উত্তোলন কাজে জড়িত বলে স্থানীয়রা জানান।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ওই জনৈক স্টাফরা বিএনপি নেতা গাফ্ফারকে নিয়ে সিন্ডিকেট করে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন ও কাজ করায় রানীগাও স্থানীয়দের মাঝে ক্ষোভ দেখা দিয়েছে।

এদিকে অফিস কর্তৃপক্ষের আড়ালে টেন্ডার কাজ ও অবৈধভাবে বালু উত্তোলনে জড়িত স্টাফদের বিরুদ্ধে বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ড হেড অফিস কর্তৃক ও গোয়েন্দা সংস্থার গোপনীয় তদন্তের মাধ্যমে জড়িতদের বিরুদ্ধে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ ও আইনগত ব্যবস্থা গ্রহনের দাবি জানান রানীগাঁও এলাকার সচেতন ব্যক্তিরা।

তারা জানান, মাঝে মধ্যে কাজে এসে তদারকি করেন বিএনপি নেতা গাফফার ও বাপাউবো হবিগঞ্জের স্টাফ রিংকু দেব, পিওন জামাল ও বড় বাবু নামে ৩ ব্যক্তি রানীগাঁও করাঙ্গী নদী থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করে কাজে জড়িত দেখা যায়।

হবিগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ড অফিসের সহকারী হিসাবরক্ষক রিংকু দেব বলেন, আমার নিজ এলাকায় এ কাজ চলছে। আমাদের দোকানঘরে মালামাল রেখে এবং আমার ভাই ও ভাতিজা কাজে কর্মক্ষেত্রে জড়িত।

আমার বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ মিথ্যা। হবিগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী সামিউল হাসান বলেন, কাজে কোন অনিয়ম হলে, এর দায় কুষ্টিয়া ভেড়ামারার নির্মাতা কৌশুলী ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান নিবে।

সাব-ঠিকাদার যে কেউ হতে পারে। তবে গাফফার সাহেব এ কাজে সংশ্লিষ্ট রয়েছেন। বালু অন্য চর থেকে তোলার কথা। অবৈধভাবে করাঙ্গী নদী থেকে বালু উত্তোলন করলে, তা স্থানীয় প্রশাসন দেখবে।

বাঁধ নির্মাণ কাজে কোন অনিয়ম হবে না, তা আমি দেখব। অফিসের কোন স্টাফ অবৈধভাবে বালু উত্তোলনে ও কাজে জড়িত থাকার বিষয়ে আমি অবগত নই। অফিস কর্তৃপক্ষের আড়ালে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন ও কাজে জড়িত থাকলে বা প্রমাণিত হলে, ব্যবস্থা নেয়া হবে।

তবে বারবার চেষ্টার পরেও তিনি এ কাজের ইস্টিমেট দিতে অনীহা প্রকাশ করেছেন। এতে ২৭ জুলাই ভ্রাম্যমান আদালত অভিযান চালিয়ে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের দায়ে ৩ জনকে আটক ও মোবাইল কোর্টে ৫০ হাজার টাকা অর্থদন্ড আরোপ করেন চুনারুঘাট উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট সিদ্ধার্থ ভৌমিক।

আটককৃতরা হলেন- জেলার শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলার আলাপুর গ্রামের মৃত আব্দুস সত্তারের পুত্র আব্দুল কাদির (কাজল) (৩৮), চুনারুঘাট উপজেলার রাণীগাঁও গ্রামের সন্তোষ দেবের পুত্র ও হবিগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ড অফিসের সহকারী হিসাবরক্ষক রিংকু দেবের আপন ভাতিজা পুলক দেব (১৮) উত্তর রানীগাও গ্রামের মৃত আব্দুর নুরের পুত্র বর্তমান পারকুল বাগানের আব্দুল কাদির (৪২) ওই ৩ ব্যক্তি মুছলেখা ও ৫০ হাজার টাকা অর্থদন্ড দিয়ে ছাড় পান।

ভ্রাম্যমাণ আদালতকে সহযোগিতা করেন চুনারুঘাট থানা পুলিশ। এ বিষয়ে চুনারুঘাট উপজেলা নির্বাহী অফিসার সিদ্ধার্থ ভৌমিক বলেন, করাঙ্গী নদী থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন কাজে তাদেরকে নিষেধ করা হয়েছে।