হবিগঞ্জ ০৮:০৮ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৫ এপ্রিল ২০২৪, ২ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
Logo আমার স্ত্রী সন্তানদের কোনো সম্পত্তির মালিক হতে দিব না, ব্যারিস্টার সুমন Logo আইনশৃঙ্খলায় অবদান রাক্ষায় জেলার শ্রেষ্ঠ হলেন চুনারুঘাট থানার ওসি হিল্লোল রায় Logo চুনারুঘাটে এফ.এন ফাউন্ডেশন ইউকে’র চেয়ারম্যান গিয়াস উদ্দিনের উদ্যোগে ইফতার মাহফিল Logo ফ্রেন্ডস ফাউন্ডেশন ও এসএসসি’৯১ ব্যাচ সিলেট বিভাগের মানবিক কার্যক্রম সম্পন্ন Logo চুনারুঘাটে যৌতুকের দাবীতে গর্ভবতী গৃহবধুকে ৫ দিন যাবৎ অমানুষিক নির্যাতন : ৯৯৯ কল পেয়ে উদ্ধার করল পুলিশ Logo হবিগঞ্জে খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির স্বল্প মূল্যে চাল বিক্রয় শুরু : তদারকিতে খাদ্য বিভাগ Logo মাধবপুরে বাংলাদেশ প্রাঃ বিদ্যালয় সহকারী শিক্ষক সমিতি ও বাংলাদেশ সরকারি প্রাঃ বিদ্যাঃ সমিতির যৌথ ইফতার মাহফিল Logo চুনারুঘাট সাংবাদিক ফোরামের দোয়া ও ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত Logo চুনারুঘাটে চেয়ারম্যান প্রার্থী আশরাফ ছিদ্দিকীর উদ্যোগে দরিদ্রদের মাঝে ঈদ উপহার বিতরণ Logo বঙ্গবন্ধু পরিষদ রংপুর জেলার মহান স্বাধীনতা দিবস ও জাতীয় দিবস পালন

চুনারুঘাটে বেশি টাকার চাকরির লোভ দেখিয়ে গৃহবধূকে পাচারের অভিযোগ

ওমান নিয়ে ৩০ হাজার টাকা বেতনে চাকরি দেওয়ার লোভ দেখিয়ে চুনারুঘাটের বন্দর লস্করপুর গ্রামের আছমা খাতুন (২৫) নামের ১ গৃহবধুকে পাচার করার অভিযোগ উঠেছে। এছাড়াও বিদেশে পাশবিক নির্যাতনের অভিযোগ করেছেন তার বোন সায়েরা খাতুন।

সায়েরা খাতুন জানান, গত ২০ মে ৫০ হাজার টাকার বিনিময়ে আছমাকে ৩০ হাজার টাকা বেতনে ওমানে চাকরি দিবে বলে বিদেশে পাঠায় স্থানীয় দালাল ফুল মিয়া (৫০), ঢাকার বিসমিল্লাহ এজেন্সির মালিক হালিম (৪০) ও কর্মচারী সুজন মিয়া (৩৫) ।
আছমা ওমানে যাওয়ার পর তাকে একটি গৃহে আবদ্ধ রেখে তাকে পাশবিক নির্যাতন করতে থাকে। আছমা কোনো ভাবে বিষয়টি তার বোন সায়েরাকে বিষয়টি জানালে তারা আছমাকে ফেরত আনতে পাচারকারী চক্রের কাছে যান। তারা ১ লক্ষ টাকার বিনিময়ে আছমাকে ফেরত এনে দিবেন বলে স্বীকার করেন। সায়েরা ১ লক্ষ টাকা দিতে অপারগতা প্রকাশ করলে তারা সায়েরাকে অপমান করে বিদায় দেয়। সায়েরা ওই ট্রাভেলস ব্যবসায়ী আঃ হালিম এর হাতে পায়ে ধরে কান্নাকাটি করলে হালিম তাকে হুমকি দিয়ে বলেন, চুনারুঘাটে তার অনেক লোকজন রয়েছে। তাদেরকে বললে সায়েরার অস্তিত্ব নষ্ট করে ফেলবে।
গত ৩ মাস ধরে আছমার কোনো খুঁজ খবর নাই বলেও জানান সায়েরা। এ মর্মে সায়েরা বাদী হয়ে আদালতে মামলা দায়ের করেছেন। আছমা চুনারুঘাট উপজেলার বন্দর লস্করপুর গ্রামের আঃ লতিফের কন্যা। অভিযুক্ত দালাল ফুল মিয়া উপজেলার বাসুল্লা গ্রামের মৃত কাজী লেদু মিয়ার পুত্র। অভিযোগকারী সায়েরা খাতুন একই গ্রামের জামাল মিয়ার স্ত্রী। বিষয়ে অভিযুক্ত ফুল মিয়ার সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, কোণাগাও গ্রামের হেলাল আছমাকে বিদেশ পাঠিয়েছে। আমি শুধু ২ কথা মেতে দিয়েছি। বিসমিল্লাহ এজেন্সির মালিক আঃ হালিম এর ম্যানেজার আনোয়ার এর সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করলে তিনি এ বিষয়ে কোনো কথা না বলে ফোন কেটে দেন।

ট্যাগস :
আপলোডকারীর তথ্য

খন্দকার আলাউদ্দিন

হ্যালো, আমি খন্দকার আলাউদ্দিন, আপনাদের চারিপাশের সংবাদ দিয়ে আমাদের সহযোগিতা করুন।
জনপ্রিয় সংবাদ

আমার স্ত্রী সন্তানদের কোনো সম্পত্তির মালিক হতে দিব না, ব্যারিস্টার সুমন

চুনারুঘাটে বেশি টাকার চাকরির লোভ দেখিয়ে গৃহবধূকে পাচারের অভিযোগ

আপডেট সময় ০৭:৩৩:৪৭ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২২

ওমান নিয়ে ৩০ হাজার টাকা বেতনে চাকরি দেওয়ার লোভ দেখিয়ে চুনারুঘাটের বন্দর লস্করপুর গ্রামের আছমা খাতুন (২৫) নামের ১ গৃহবধুকে পাচার করার অভিযোগ উঠেছে। এছাড়াও বিদেশে পাশবিক নির্যাতনের অভিযোগ করেছেন তার বোন সায়েরা খাতুন।

সায়েরা খাতুন জানান, গত ২০ মে ৫০ হাজার টাকার বিনিময়ে আছমাকে ৩০ হাজার টাকা বেতনে ওমানে চাকরি দিবে বলে বিদেশে পাঠায় স্থানীয় দালাল ফুল মিয়া (৫০), ঢাকার বিসমিল্লাহ এজেন্সির মালিক হালিম (৪০) ও কর্মচারী সুজন মিয়া (৩৫) ।
আছমা ওমানে যাওয়ার পর তাকে একটি গৃহে আবদ্ধ রেখে তাকে পাশবিক নির্যাতন করতে থাকে। আছমা কোনো ভাবে বিষয়টি তার বোন সায়েরাকে বিষয়টি জানালে তারা আছমাকে ফেরত আনতে পাচারকারী চক্রের কাছে যান। তারা ১ লক্ষ টাকার বিনিময়ে আছমাকে ফেরত এনে দিবেন বলে স্বীকার করেন। সায়েরা ১ লক্ষ টাকা দিতে অপারগতা প্রকাশ করলে তারা সায়েরাকে অপমান করে বিদায় দেয়। সায়েরা ওই ট্রাভেলস ব্যবসায়ী আঃ হালিম এর হাতে পায়ে ধরে কান্নাকাটি করলে হালিম তাকে হুমকি দিয়ে বলেন, চুনারুঘাটে তার অনেক লোকজন রয়েছে। তাদেরকে বললে সায়েরার অস্তিত্ব নষ্ট করে ফেলবে।
গত ৩ মাস ধরে আছমার কোনো খুঁজ খবর নাই বলেও জানান সায়েরা। এ মর্মে সায়েরা বাদী হয়ে আদালতে মামলা দায়ের করেছেন। আছমা চুনারুঘাট উপজেলার বন্দর লস্করপুর গ্রামের আঃ লতিফের কন্যা। অভিযুক্ত দালাল ফুল মিয়া উপজেলার বাসুল্লা গ্রামের মৃত কাজী লেদু মিয়ার পুত্র। অভিযোগকারী সায়েরা খাতুন একই গ্রামের জামাল মিয়ার স্ত্রী। বিষয়ে অভিযুক্ত ফুল মিয়ার সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, কোণাগাও গ্রামের হেলাল আছমাকে বিদেশ পাঠিয়েছে। আমি শুধু ২ কথা মেতে দিয়েছি। বিসমিল্লাহ এজেন্সির মালিক আঃ হালিম এর ম্যানেজার আনোয়ার এর সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করলে তিনি এ বিষয়ে কোনো কথা না বলে ফোন কেটে দেন।