হবিগঞ্জ ০৫:৫৮ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪, ৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
Logo পর্তুগালে এক সাংবাদিকের উপর হামলা, ৩ জনের বিরুদ্ধে মামলা ও নিন্দা। Logo অতিবৃষ্টিতে চুনারুঘাটের নিম্নাঞ্চল প্লাবিত, বাড়ছে দুর্ভোগ Logo চা-বাগান এলাকায় এই প্রথম বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল স্থাপন করলেন ব্যারিস্টার সুমন Logo এবার ঈদের ছুটিতে পর্যটকদের জন্য নতুন রূপে চুনারুঘাটের পর্যটন এলাকাকে সাজালেন ব্যারিস্টার সুমন Logo সাম্যের ঈদ চাই !!  Logo নিজের পালিত গরু এমপি সুমনকে উপহার দিলেন এক ভক্ত Logo শায়েস্তাগঞ্জে ইয়াবাসহ মুদি মাল ব্যবসায়ী গ্রেফতার Logo শ্রেষ্ঠ এএসআই চুনারুঘাট থানার মনির হোসেন Logo দ্বিতীয় গোপালগঞ্জে’ আওয়ামী বিরোধীদের উত্থানের নেপথ্যে কী? Logo চুনারুঘাটে আরো ৭১টি পরিবার পাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রীর নতুন ঘর

রেমা-কালেঙ্গা অভয়ারণ্যের হরিণ খাওয়ার অভিযোগ উঠেছে ইউপি সদস্যসহ কয়েকটি পরিবারের বিরুদ্ধে

চুনারুঘাটের রেমা-কালেঙ্গা অভয়ারণ্যের একটি মায়া হরিণ জবাই করে ভাগবাটোয়ারার খাওয়ার অভিযোগ উঠেছে এক ইউপি সদস্য সহ কয়েকটি পরিবারের বিরুদ্ধে। বুধবার সকালে উপজেলার ছনখলা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয়রা জানান, ওই গ্রামের আব্দুল করিম ও আব্বাস মিয়া একটি মায়া হরিণকে ধাওয়া করেন। হরিণটি একপর্যায়ে মকছুদ আলীর পুকুরে পড়ে যায়। আব্দুল করিম রড দিয়ে হরিণটির মাথায় আঘাত করেন।

এতে প্রাণীটি নিস্তেজ হয়ে পড়লে জবাই করে আজাদ মেম্বারের স্ত্রী, আব্দুল করিম, আব্বাস মিয়া, এংরাজ মিয়া, জাহির মিয়া, প্রবাসী তাহির মিয়ার স্ত্রী, করিমের স্ত্রীসহ আরও কয়েকজন মাংস ভাগবাটোয়ারা করে নেন।

খবর পেয়ে কালেঙ্গা ও রেমার বনকর্মীরা ঘটনাস্থলে ছুটে যান। তবে তারা সেখানে পৌঁছার আগেই হরিণ জবাইয়ের সব আলামত নষ্ট করে দেন অভিযুক্তরা।

এ বিষয়ে রেমা বিট কর্মকর্তা ছালেকিন নেওয়াজ বলেন, বনবিভাগ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে লোকমুখে শোনা ছাড়া আর কোনো আলামত পাইনি।

বিভাগীয় বন কর্মকর্তা রেজাউল করিম চৌধুরী বলেন, বিষয়টি খুব দুঃখজনক। বন্য প্রাণী হত্যা ও শিকার দুটিই দণ্ডনীয় অপরাধ। হরিণটি যারা শিকার করে জবাই করেছে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেবে সংশ্লিষ্ট বিভাগ।

ট্যাগস :
আপলোডকারীর তথ্য

খন্দকার আলাউদ্দিন

হ্যালো, আমি খন্দকার আলাউদ্দিন, আপনাদের চারিপাশের সংবাদ দিয়ে আমাদের সহযোগিতা করুন।
জনপ্রিয় সংবাদ

পর্তুগালে এক সাংবাদিকের উপর হামলা, ৩ জনের বিরুদ্ধে মামলা ও নিন্দা।

রেমা-কালেঙ্গা অভয়ারণ্যের হরিণ খাওয়ার অভিযোগ উঠেছে ইউপি সদস্যসহ কয়েকটি পরিবারের বিরুদ্ধে

আপডেট সময় ০৬:৪০:৪৫ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২২

চুনারুঘাটের রেমা-কালেঙ্গা অভয়ারণ্যের একটি মায়া হরিণ জবাই করে ভাগবাটোয়ারার খাওয়ার অভিযোগ উঠেছে এক ইউপি সদস্য সহ কয়েকটি পরিবারের বিরুদ্ধে। বুধবার সকালে উপজেলার ছনখলা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয়রা জানান, ওই গ্রামের আব্দুল করিম ও আব্বাস মিয়া একটি মায়া হরিণকে ধাওয়া করেন। হরিণটি একপর্যায়ে মকছুদ আলীর পুকুরে পড়ে যায়। আব্দুল করিম রড দিয়ে হরিণটির মাথায় আঘাত করেন।

এতে প্রাণীটি নিস্তেজ হয়ে পড়লে জবাই করে আজাদ মেম্বারের স্ত্রী, আব্দুল করিম, আব্বাস মিয়া, এংরাজ মিয়া, জাহির মিয়া, প্রবাসী তাহির মিয়ার স্ত্রী, করিমের স্ত্রীসহ আরও কয়েকজন মাংস ভাগবাটোয়ারা করে নেন।

খবর পেয়ে কালেঙ্গা ও রেমার বনকর্মীরা ঘটনাস্থলে ছুটে যান। তবে তারা সেখানে পৌঁছার আগেই হরিণ জবাইয়ের সব আলামত নষ্ট করে দেন অভিযুক্তরা।

এ বিষয়ে রেমা বিট কর্মকর্তা ছালেকিন নেওয়াজ বলেন, বনবিভাগ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে লোকমুখে শোনা ছাড়া আর কোনো আলামত পাইনি।

বিভাগীয় বন কর্মকর্তা রেজাউল করিম চৌধুরী বলেন, বিষয়টি খুব দুঃখজনক। বন্য প্রাণী হত্যা ও শিকার দুটিই দণ্ডনীয় অপরাধ। হরিণটি যারা শিকার করে জবাই করেছে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেবে সংশ্লিষ্ট বিভাগ।