হবিগঞ্জ ০৩:০২ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ১ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
Logo আমার স্ত্রী সন্তানদের কোনো সম্পত্তির মালিক হতে দিব না, ব্যারিস্টার সুমন Logo আইনশৃঙ্খলায় অবদান রাক্ষায় জেলার শ্রেষ্ঠ হলেন চুনারুঘাট থানার ওসি হিল্লোল রায় Logo চুনারুঘাটে এফ.এন ফাউন্ডেশন ইউকে’র চেয়ারম্যান গিয়াস উদ্দিনের উদ্যোগে ইফতার মাহফিল Logo ফ্রেন্ডস ফাউন্ডেশন ও এসএসসি’৯১ ব্যাচ সিলেট বিভাগের মানবিক কার্যক্রম সম্পন্ন Logo চুনারুঘাটে যৌতুকের দাবীতে গর্ভবতী গৃহবধুকে ৫ দিন যাবৎ অমানুষিক নির্যাতন : ৯৯৯ কল পেয়ে উদ্ধার করল পুলিশ Logo হবিগঞ্জে খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির স্বল্প মূল্যে চাল বিক্রয় শুরু : তদারকিতে খাদ্য বিভাগ Logo মাধবপুরে বাংলাদেশ প্রাঃ বিদ্যালয় সহকারী শিক্ষক সমিতি ও বাংলাদেশ সরকারি প্রাঃ বিদ্যাঃ সমিতির যৌথ ইফতার মাহফিল Logo চুনারুঘাট সাংবাদিক ফোরামের দোয়া ও ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত Logo চুনারুঘাটে চেয়ারম্যান প্রার্থী আশরাফ ছিদ্দিকীর উদ্যোগে দরিদ্রদের মাঝে ঈদ উপহার বিতরণ Logo বঙ্গবন্ধু পরিষদ রংপুর জেলার মহান স্বাধীনতা দিবস ও জাতীয় দিবস পালন

ড. সৈয়দ মকবুল হোসেনের মৃত্যুতে জালালাবাদ এসোসিয়েশনের শোক

জালালাবাদ এসোসিয়েশনের আজীবন সদস্য, সাবেক সংসদ সদস্য এবং বিশিষ্ট সমাজসেবী ড. সৈয়দ মকবুল হোসেন আর নেই। তিনি বুধবার (১৬ মার্চ) রাত ৯.৪৫ মিনিটে রাজধানীর একটি বেসরকারি হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেছেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। তিনি বেশ কিছুদিন থেকে বার্ধক্যজনিত রোগে ভুগছিলেন।
সৈয়দ মকবুল হোসেন ১৯৪৬ সালে গোলাপগঞ্জ উপজেলার পশ্চিম আমুড়া ইউনিয়নের সুন্দিসাইল গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইতিহাসে বিএ এবং এমএ পাশ করেন। পরবর্তীতে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পিএইচডি লাভ করেছেন। তিনি সক্রিয়ভাবে মহান মুক্তিযোদ্ধে অংশগ্রহণ করেন। স্বাধীনতা পূর্ববর্তী সময়ে সরকারি কর্মকর্তা হিসেবে কর্মজীবন শুরু করেন এবং ১৯৭৫ সালে তিনি সরকারি চাকুরী থেকে স্বেচ্ছায় ইস্তফা দিয়ে ব্যবসা শুরু করেন। তিনি ১৯৮৬ সালের তৃতীয় ও ২০০১ সালের অষ্টম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে সিলেট-৬ আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। তিনি সিলেটের গোলাপগঞ্জ ও বিয়ানীবাজারে বেশ কয়েকটি বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করেন।
তাঁর মৃত্যুতে জালালাবাদ এসোসিয়েশন, ঢাকার সভাপতি ড. এ কে আব্দুল মুবিন, সাধারণ সম্পাদক এড. জসিম উদ্দিন আহমেদ, জালালাবাদ ভবন ট্রাস্টের চেয়ারম্যান জনাব আব্দুল হামিদ চৌধুরী ও সেক্রেটারি জনাব আব্দুল কাইয়ুম চৌধুরী এবং জালালাবাদ শিক্ষা ট্রাস্টের চেয়ারম্যান ড. মোহাম্মদ ফরাসউদ্দিন ও সেক্রেটারি জনাব জালাল আহমেদ গভীর শোক প্রকাশ করেছেন। নেতৃবৃন্দ শোক বার্তায় বলেন, সিলেটবাসী একজন কৃতি সন্তানকে হারালো। তিনি সমাজে অত্যন্ত জনপ্রিয় ও গ্রহণযোগ্য ব্যক্তি ছিলেন। সিলেটে একজন দানশীল ব্যক্তি হিসাবে পরিচিত ছিলেন। নেতৃবৃন্দ তাঁর রুহের মাগফিরাত কামনা করেন এবং পরিবারবর্গের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেন।বার্তা প্রেরক, মোঃ শফিকুল ইসলাম সজল, দপ্তর সম্পাদক।

ট্যাগস :
আপলোডকারীর তথ্য

খন্দকার আলাউদ্দিন

হ্যালো, আমি খন্দকার আলাউদ্দিন, আপনাদের চারিপাশের সংবাদ দিয়ে আমাদের সহযোগিতা করুন।
জনপ্রিয় সংবাদ

আমার স্ত্রী সন্তানদের কোনো সম্পত্তির মালিক হতে দিব না, ব্যারিস্টার সুমন

ড. সৈয়দ মকবুল হোসেনের মৃত্যুতে জালালাবাদ এসোসিয়েশনের শোক

আপডেট সময় ০৯:১০:০৫ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৭ মার্চ ২০২২

জালালাবাদ এসোসিয়েশনের আজীবন সদস্য, সাবেক সংসদ সদস্য এবং বিশিষ্ট সমাজসেবী ড. সৈয়দ মকবুল হোসেন আর নেই। তিনি বুধবার (১৬ মার্চ) রাত ৯.৪৫ মিনিটে রাজধানীর একটি বেসরকারি হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেছেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। তিনি বেশ কিছুদিন থেকে বার্ধক্যজনিত রোগে ভুগছিলেন।
সৈয়দ মকবুল হোসেন ১৯৪৬ সালে গোলাপগঞ্জ উপজেলার পশ্চিম আমুড়া ইউনিয়নের সুন্দিসাইল গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইতিহাসে বিএ এবং এমএ পাশ করেন। পরবর্তীতে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পিএইচডি লাভ করেছেন। তিনি সক্রিয়ভাবে মহান মুক্তিযোদ্ধে অংশগ্রহণ করেন। স্বাধীনতা পূর্ববর্তী সময়ে সরকারি কর্মকর্তা হিসেবে কর্মজীবন শুরু করেন এবং ১৯৭৫ সালে তিনি সরকারি চাকুরী থেকে স্বেচ্ছায় ইস্তফা দিয়ে ব্যবসা শুরু করেন। তিনি ১৯৮৬ সালের তৃতীয় ও ২০০১ সালের অষ্টম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে সিলেট-৬ আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। তিনি সিলেটের গোলাপগঞ্জ ও বিয়ানীবাজারে বেশ কয়েকটি বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করেন।
তাঁর মৃত্যুতে জালালাবাদ এসোসিয়েশন, ঢাকার সভাপতি ড. এ কে আব্দুল মুবিন, সাধারণ সম্পাদক এড. জসিম উদ্দিন আহমেদ, জালালাবাদ ভবন ট্রাস্টের চেয়ারম্যান জনাব আব্দুল হামিদ চৌধুরী ও সেক্রেটারি জনাব আব্দুল কাইয়ুম চৌধুরী এবং জালালাবাদ শিক্ষা ট্রাস্টের চেয়ারম্যান ড. মোহাম্মদ ফরাসউদ্দিন ও সেক্রেটারি জনাব জালাল আহমেদ গভীর শোক প্রকাশ করেছেন। নেতৃবৃন্দ শোক বার্তায় বলেন, সিলেটবাসী একজন কৃতি সন্তানকে হারালো। তিনি সমাজে অত্যন্ত জনপ্রিয় ও গ্রহণযোগ্য ব্যক্তি ছিলেন। সিলেটে একজন দানশীল ব্যক্তি হিসাবে পরিচিত ছিলেন। নেতৃবৃন্দ তাঁর রুহের মাগফিরাত কামনা করেন এবং পরিবারবর্গের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেন।বার্তা প্রেরক, মোঃ শফিকুল ইসলাম সজল, দপ্তর সম্পাদক।