হবিগঞ্জ ১০:২৪ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৪, ৩০ চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
Logo আমার স্ত্রী সন্তানদের কোনো সম্পত্তির মালিক হতে দিব না, ব্যারিস্টার সুমন Logo আইনশৃঙ্খলায় অবদান রাক্ষায় জেলার শ্রেষ্ঠ হলেন চুনারুঘাট থানার ওসি হিল্লোল রায় Logo চুনারুঘাটে এফ.এন ফাউন্ডেশন ইউকে’র চেয়ারম্যান গিয়াস উদ্দিনের উদ্যোগে ইফতার মাহফিল Logo ফ্রেন্ডস ফাউন্ডেশন ও এসএসসি’৯১ ব্যাচ সিলেট বিভাগের মানবিক কার্যক্রম সম্পন্ন Logo চুনারুঘাটে যৌতুকের দাবীতে গর্ভবতী গৃহবধুকে ৫ দিন যাবৎ অমানুষিক নির্যাতন : ৯৯৯ কল পেয়ে উদ্ধার করল পুলিশ Logo হবিগঞ্জে খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির স্বল্প মূল্যে চাল বিক্রয় শুরু : তদারকিতে খাদ্য বিভাগ Logo মাধবপুরে বাংলাদেশ প্রাঃ বিদ্যালয় সহকারী শিক্ষক সমিতি ও বাংলাদেশ সরকারি প্রাঃ বিদ্যাঃ সমিতির যৌথ ইফতার মাহফিল Logo চুনারুঘাট সাংবাদিক ফোরামের দোয়া ও ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত Logo চুনারুঘাটে চেয়ারম্যান প্রার্থী আশরাফ ছিদ্দিকীর উদ্যোগে দরিদ্রদের মাঝে ঈদ উপহার বিতরণ Logo বঙ্গবন্ধু পরিষদ রংপুর জেলার মহান স্বাধীনতা দিবস ও জাতীয় দিবস পালন

ইউপি চেয়ারম্যানকে জুতাপেটা করলেন প্রবাসীর স্ত্রী

নওগাঁর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল ওহাব চাঁনকে প্রকাশ্য জুতাপেটা করেছে এক প্রবাসীর স্ত্রী বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় রাণীনগর উপজেলার কালীগ্রাম চেয়ারম্যান থানায় সাধারণ ডায়েরি ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।

গতকাল সোমবার (৬ মার্চ) দুপুরে রাণীনগর উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন চেয়ারম্যান আব্দুল ওহাব চাঁন। অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, গত রোববার সন্ধ্যায় রাণীনগর থেকে মোটরসাইকেলে নিজ এলাকায় ফিরছিলেন আব্দুল ওহাব।

অভিযুক্ত ওই নারীর দাবি, চেয়ারম্যানের কু-প্রস্তাব ও তার বিরুদ্ধে অশালীন কথাবার্তায় অতিষ্ট হয়েই এমন কাণ্ড ঘটিয়েছেন তিনি। প্রশাসনের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, ঘটনাটি তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

করজগ্রাম বাজারে পৌঁছালে স্থানীয় একজন মোটরসাইকেল থামিয়ে ওয়ারিশান কাগজে স্বাক্ষর চান। মোটরসাইকেল থেকে নেমে কাগজে স্বাক্ষর করার সময় পেছন থেকে এক নারী জুতা দিয়ে তাকে মারতে শুরু করেন ।

এরপর ওই নারী ঘটনাস্থল থেকে চলে যান। চেয়ারম্যান আব্দুল ওহাব চাঁন বলেন, ‘ওই নারী বাড়িতে একা থাকেন। এই সুযোগে ওই নারীর বাড়িতে এক ব্যক্তি যাওয়া-আসা করেন। বিষয়টি প্রতিবেশীদের নজরে আসলে তারা আমাকে জানায়।

আমি ওই নারী এবং ওই ব্যক্তিকে নিষেধ করার পর থেকে আমার বিরুদ্ধে নানা ধরনের মিথ্যে রটনা ছড়ায়। এরই জেরে ওই নারী গত রোববার সন্ধ্যায় এঘটনা ঘটায়।

ঘটনাটি সঙ্গে সঙ্গে থানা পুলিশকে জানালে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে তদন্ত করে। পরে ওই রাতেই থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেছি। গতকাল সোমবার দুপুরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর একটি লিখিত অভিযোগ জমা দিয়েছি।’

ঘটনার বিষয়ে জানতে চাইলে প্রবাসীর স্ত্রী বলেন, ‘দীর্ঘদিন ধরে চেয়ারম্যান আব্দুল ওহাব আমাকে কু-প্রস্তাব দিয়ে আসছিলেন। এছাড়া বিভিন্ন জায়গায় আমার বিরুদ্ধে অশালীন কথাবার্তা বলে আসছেন তিনি। তার কারণে সমাজে টিকে থাকা আমার জন্য কঠিন হয়ে পড়েছে।

আমি তাকে নিষেধ করার পরেও তিনি শোনেননি। বাধ্য হয়ে চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে কিছু দিন আগে থানায় একটি লিখিত অভিযোগও করেছি। এরপরেও তিনি অশালীন কথা বলা বন্ধ না করায় অতিষ্ট হয়ে তাকে জুতাপেটা করেছি।

রাণীনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল কালাম আজাদ বলেন, ‘মারধরের ঘটনায় চেয়ারম্যান আব্দুল ওহাব একটি সাধারণ ডায়েরি করেছেন। ঘটনাটি সুষ্ঠ তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।’ ওই নারীর অভিযোগ প্রাপ্তির বিষয়ে জানতে চাইলে ওসি বলেন, ‘অভিযোগ পেয়েছি তবে সেটি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে কু-প্রস্তাব বা অশালীন কথাবার্তার নয়।

চেয়ারম্যান কিছু লোকজন নিয়ে গিয়ে ওই নারীর বাড়িতে জনগণ প্রবেশের নিষেধাজ্ঞা দিয়ে এসেছে এমন।’ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শাহাদাত হুসেইন বলেন, ‘গতকাল সোমবার চেয়ারম্যান আব্দুল ওহাব চাঁন একটি লিখিত অভিযোগ করেছেন। বিষয়টি তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

ট্যাগস :
আপলোডকারীর তথ্য

খন্দকার আলাউদ্দিন

হ্যালো, আমি খন্দকার আলাউদ্দিন, আপনাদের চারিপাশের সংবাদ দিয়ে আমাদের সহযোগিতা করুন।
জনপ্রিয় সংবাদ

আমার স্ত্রী সন্তানদের কোনো সম্পত্তির মালিক হতে দিব না, ব্যারিস্টার সুমন

ইউপি চেয়ারম্যানকে জুতাপেটা করলেন প্রবাসীর স্ত্রী

আপডেট সময় ০১:১৯:২৮ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৭ মার্চ ২০২৩

নওগাঁর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল ওহাব চাঁনকে প্রকাশ্য জুতাপেটা করেছে এক প্রবাসীর স্ত্রী বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় রাণীনগর উপজেলার কালীগ্রাম চেয়ারম্যান থানায় সাধারণ ডায়েরি ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।

গতকাল সোমবার (৬ মার্চ) দুপুরে রাণীনগর উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন চেয়ারম্যান আব্দুল ওহাব চাঁন। অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, গত রোববার সন্ধ্যায় রাণীনগর থেকে মোটরসাইকেলে নিজ এলাকায় ফিরছিলেন আব্দুল ওহাব।

অভিযুক্ত ওই নারীর দাবি, চেয়ারম্যানের কু-প্রস্তাব ও তার বিরুদ্ধে অশালীন কথাবার্তায় অতিষ্ট হয়েই এমন কাণ্ড ঘটিয়েছেন তিনি। প্রশাসনের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, ঘটনাটি তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

করজগ্রাম বাজারে পৌঁছালে স্থানীয় একজন মোটরসাইকেল থামিয়ে ওয়ারিশান কাগজে স্বাক্ষর চান। মোটরসাইকেল থেকে নেমে কাগজে স্বাক্ষর করার সময় পেছন থেকে এক নারী জুতা দিয়ে তাকে মারতে শুরু করেন ।

এরপর ওই নারী ঘটনাস্থল থেকে চলে যান। চেয়ারম্যান আব্দুল ওহাব চাঁন বলেন, ‘ওই নারী বাড়িতে একা থাকেন। এই সুযোগে ওই নারীর বাড়িতে এক ব্যক্তি যাওয়া-আসা করেন। বিষয়টি প্রতিবেশীদের নজরে আসলে তারা আমাকে জানায়।

আমি ওই নারী এবং ওই ব্যক্তিকে নিষেধ করার পর থেকে আমার বিরুদ্ধে নানা ধরনের মিথ্যে রটনা ছড়ায়। এরই জেরে ওই নারী গত রোববার সন্ধ্যায় এঘটনা ঘটায়।

ঘটনাটি সঙ্গে সঙ্গে থানা পুলিশকে জানালে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে তদন্ত করে। পরে ওই রাতেই থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেছি। গতকাল সোমবার দুপুরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর একটি লিখিত অভিযোগ জমা দিয়েছি।’

ঘটনার বিষয়ে জানতে চাইলে প্রবাসীর স্ত্রী বলেন, ‘দীর্ঘদিন ধরে চেয়ারম্যান আব্দুল ওহাব আমাকে কু-প্রস্তাব দিয়ে আসছিলেন। এছাড়া বিভিন্ন জায়গায় আমার বিরুদ্ধে অশালীন কথাবার্তা বলে আসছেন তিনি। তার কারণে সমাজে টিকে থাকা আমার জন্য কঠিন হয়ে পড়েছে।

আমি তাকে নিষেধ করার পরেও তিনি শোনেননি। বাধ্য হয়ে চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে কিছু দিন আগে থানায় একটি লিখিত অভিযোগও করেছি। এরপরেও তিনি অশালীন কথা বলা বন্ধ না করায় অতিষ্ট হয়ে তাকে জুতাপেটা করেছি।

রাণীনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল কালাম আজাদ বলেন, ‘মারধরের ঘটনায় চেয়ারম্যান আব্দুল ওহাব একটি সাধারণ ডায়েরি করেছেন। ঘটনাটি সুষ্ঠ তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।’ ওই নারীর অভিযোগ প্রাপ্তির বিষয়ে জানতে চাইলে ওসি বলেন, ‘অভিযোগ পেয়েছি তবে সেটি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে কু-প্রস্তাব বা অশালীন কথাবার্তার নয়।

চেয়ারম্যান কিছু লোকজন নিয়ে গিয়ে ওই নারীর বাড়িতে জনগণ প্রবেশের নিষেধাজ্ঞা দিয়ে এসেছে এমন।’ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শাহাদাত হুসেইন বলেন, ‘গতকাল সোমবার চেয়ারম্যান আব্দুল ওহাব চাঁন একটি লিখিত অভিযোগ করেছেন। বিষয়টি তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’