হবিগঞ্জ ১০:০৪ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৮ মে ২০২৪, ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
Logo ২২ দিন অন্ধকারে থাকার পর ব্যারিস্টার সুমনের সহযোগিতায় বিদ্যুৎ সংযোগ পেল ৩৪ টি পরিবার Logo মাধবপুরে আগুনে পুড়ে ছাই হলো মিলনের বেঁচে থাকার অবলম্বন Logo চুনারুঘাট উপজেলা নির্বাচনে ১৭ প্রার্থীর মনোনয়ন পত্র দাখিল Logo সাতছড়ি জাতীয় উদ্যান সহ-ব্যবস্থাপনা কমিটি গঠন Logo বিদ্যুৎপৃষ্ঠে নিহতের পরিবারের পাশে ব্যারিস্টার সুমন-এমপি Logo টেকনাফের ব্যাবসায়ী ৫শ’ পিছ ইয়াবাসহ চুনারুঘাটে গ্রেপ্তার Logo চুনারুঘাটে তীব্র দাবদাহে সুপেয় পানি ও খাবার স্যালাইন বিতরণ Logo শেখ হাসিনার আধুনিক চিন্তা ধারায় বদলে গেল কৃষিখাত, ব্যারিস্টার সুমন Logo কথায় কথায় বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিক তাদের কাম কি? মানুষের টাকা মেরে দেয়া, ব্যারিস্টার সুমন Logo বাহুবলে অবৈধভাবে মাটি উত্তোলন, জরিমানা ৫০ হাজার টাকা

চুনারুঘাটে গরু চুরি মামলার আসামী কথিত সাংবাদিক মাহফুজ পলাতক, প্রেফতার-১

হবিগঞ্জের চুনারুঘাট উপজেলার ৫নং শানখলা ইউনিয়নের চলিতারআব্দা গ্রামের মাদরাসা শিক্ষক আবুল কালাম মোঃ হারুনের একটি গাভী চুরির সাথে জড়িত ইসমাইল মিয়াকে আটক করেছে পুলিশ।

একই ঘটনায় দ্বিতীয় আসামী কথিত সাংবাদিক মোঃ মাহফুজকে খোঁজছে পুলিশ। পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, সোমবার (২৯ জানুয়ারী) ভোর রাতে উপজেলার বরমপুর গ্রাম থেকে গরু চুরির সাথে জড়িত থাকায় ইসমাইল মিয়াকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করা হয়েছে।

পলাতক আসামী মোঃ মাহফুজ নতুন ব্রীজ নামসর্বস্ব আঞ্চলিক প্রেসক্লাবের যুগ্ম সম্পাদক এবং নিজেকে সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে বেড়ান। তিনি হবিগঞ্জ জেলা পরিষদের গত নির্বাচনে ৬ নং ওয়ার্ড শায়েস্তাগঞ্জ থেকে সদস্য পদে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করে কোনো ভোটই পাননি।
এর আগে ২৩ জানুয়ারী সকাল ১০টা থেকে ১১টার মধ্যে উপজেলার চলিতারআব্দা তানহা ব্রিক ফিল্ডের পাশের জমি থেকে গাড়ীটি চুরি হয়।

গরুর মালিক মাদরাসা শিক্ষক বিষয়টি বুঝতে পেরে তাৎক্ষণিক গ্রামে গ্রামে ঘুরে গরুটি খোঁজাখুঁজি করতে থাকেন।

বিকেলে বড়কোটা বাজারে গেলে বড়কোট গ্রামের কাউছার মিয়া, দুলাল মিয়া, ইদ্রিছ আলীর বরাত দিয়ে গরুর মালিক জানান, বরমপুর গ্রামের ইসমাইল মিয়া ও শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলার নিশাপট গ্রামের মোঃ মাহফুজসহ অজ্ঞাত আরো ২-৩ জন মিলে গরুটি বড়কোটা বাজার হয়ে বালিয়ারীগামী রাস্তা দিয়ে নিয়ে যেতে দেখেছেন।

এরই সূত্রধরে রাতে ইসমাইল মিয়াকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করলে এক পর্যায়ে আটক ইসমাইল মিয়া তার সহযোগী মোঃ মাহফুজসহ অজ্ঞাতনামা আরো ২-৩ জনের নাম স্বীকার করেন এবং গরুটি মোঃ মাহফুজের নিয়ন্ত্রনে আছে বলে জানায়। পরে গরুর মালিক চুনারুঘাট থানা পুলিশ নিয়ে নবীগঞ্জ থেকে গরুটি উদ্ধার করেন।

চুনারুঘাট থানা পুলিশ আসামী ইসমাইল মিয়াকে আদালতে হাজির করলে আটক আসামী আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্ধিতে অপর আসামীরাও জড়িত আছে বলে সে জানায়। আদালত জবানবন্ধি শেষে আসামী ইসমাইলকে জেল হাজতে প্রেরণ করেন এবং আসামী মাহফুজ পলাতক বলে জানায় পুলিশ।

চুনারুঘাট থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) হিল্লুল রায় মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, আটক আসামী আদালতে স্বীকারোক্তিমুলক জবানবন্ধিতে গরু চুরির বিষয়টি স্বীকার করেছে এবং পলাতক আসামী মোঃ মাহফুজ সহ অন্য আসামীদের গ্রেফতারের প্রক্রিয়া চলছে।

ট্যাগস :
আপলোডকারীর তথ্য

খন্দকার আলাউদ্দিন

হ্যালো, আমি খন্দকার আলাউদ্দিন, আপনাদের চারিপাশের সংবাদ দিয়ে আমাদের সহযোগিতা করুন।
জনপ্রিয় সংবাদ

২২ দিন অন্ধকারে থাকার পর ব্যারিস্টার সুমনের সহযোগিতায় বিদ্যুৎ সংযোগ পেল ৩৪ টি পরিবার

চুনারুঘাটে গরু চুরি মামলার আসামী কথিত সাংবাদিক মাহফুজ পলাতক, প্রেফতার-১

আপডেট সময় ১২:৪৮:৪৪ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ৩১ জানুয়ারী ২০২৪

হবিগঞ্জের চুনারুঘাট উপজেলার ৫নং শানখলা ইউনিয়নের চলিতারআব্দা গ্রামের মাদরাসা শিক্ষক আবুল কালাম মোঃ হারুনের একটি গাভী চুরির সাথে জড়িত ইসমাইল মিয়াকে আটক করেছে পুলিশ।

একই ঘটনায় দ্বিতীয় আসামী কথিত সাংবাদিক মোঃ মাহফুজকে খোঁজছে পুলিশ। পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, সোমবার (২৯ জানুয়ারী) ভোর রাতে উপজেলার বরমপুর গ্রাম থেকে গরু চুরির সাথে জড়িত থাকায় ইসমাইল মিয়াকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করা হয়েছে।

পলাতক আসামী মোঃ মাহফুজ নতুন ব্রীজ নামসর্বস্ব আঞ্চলিক প্রেসক্লাবের যুগ্ম সম্পাদক এবং নিজেকে সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে বেড়ান। তিনি হবিগঞ্জ জেলা পরিষদের গত নির্বাচনে ৬ নং ওয়ার্ড শায়েস্তাগঞ্জ থেকে সদস্য পদে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করে কোনো ভোটই পাননি।
এর আগে ২৩ জানুয়ারী সকাল ১০টা থেকে ১১টার মধ্যে উপজেলার চলিতারআব্দা তানহা ব্রিক ফিল্ডের পাশের জমি থেকে গাড়ীটি চুরি হয়।

গরুর মালিক মাদরাসা শিক্ষক বিষয়টি বুঝতে পেরে তাৎক্ষণিক গ্রামে গ্রামে ঘুরে গরুটি খোঁজাখুঁজি করতে থাকেন।

বিকেলে বড়কোটা বাজারে গেলে বড়কোট গ্রামের কাউছার মিয়া, দুলাল মিয়া, ইদ্রিছ আলীর বরাত দিয়ে গরুর মালিক জানান, বরমপুর গ্রামের ইসমাইল মিয়া ও শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলার নিশাপট গ্রামের মোঃ মাহফুজসহ অজ্ঞাত আরো ২-৩ জন মিলে গরুটি বড়কোটা বাজার হয়ে বালিয়ারীগামী রাস্তা দিয়ে নিয়ে যেতে দেখেছেন।

এরই সূত্রধরে রাতে ইসমাইল মিয়াকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করলে এক পর্যায়ে আটক ইসমাইল মিয়া তার সহযোগী মোঃ মাহফুজসহ অজ্ঞাতনামা আরো ২-৩ জনের নাম স্বীকার করেন এবং গরুটি মোঃ মাহফুজের নিয়ন্ত্রনে আছে বলে জানায়। পরে গরুর মালিক চুনারুঘাট থানা পুলিশ নিয়ে নবীগঞ্জ থেকে গরুটি উদ্ধার করেন।

চুনারুঘাট থানা পুলিশ আসামী ইসমাইল মিয়াকে আদালতে হাজির করলে আটক আসামী আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্ধিতে অপর আসামীরাও জড়িত আছে বলে সে জানায়। আদালত জবানবন্ধি শেষে আসামী ইসমাইলকে জেল হাজতে প্রেরণ করেন এবং আসামী মাহফুজ পলাতক বলে জানায় পুলিশ।

চুনারুঘাট থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) হিল্লুল রায় মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, আটক আসামী আদালতে স্বীকারোক্তিমুলক জবানবন্ধিতে গরু চুরির বিষয়টি স্বীকার করেছে এবং পলাতক আসামী মোঃ মাহফুজ সহ অন্য আসামীদের গ্রেফতারের প্রক্রিয়া চলছে।